মাওলানা আতাউল কারীম মাকসুদ

ফিকহ, তাফসির, হাদিস ও ইসলামি বিবিধ শাস্ত্রে বুৎপত্তি অর্জনকারী একজন সত্যিকার শাস্ত্রজ্ঞ মানুষ। ইসলামের নানান শাস্ত্রে শিক্ষা, গবেষণা, লেখালেখি ও শিক্ষাদানের মাধ্যমে ব্যাপক পদচারণা অধ্যব্দি নিরত থাকলেও হাদিস এবং উলুমুল হাদিস তত্ত্বে তাঁর পাণ্ডিত্য সর্বজনবিদিত এবং এটিই তাঁর গবেষণার মূল ক্ষেত্র। পূর্বসূরিদের জ্ঞান, মত, পথ ও চেতনায় বিশ্বাসী। পড়াশোনা আর গবেষণায় ডুবে থেকেছেন বেশি, যতটা লেখালেখির ভেতরে থেকেছেন—তার চেয়ে। ফলে সেই পড়া-গবেষণার হাত ধরেই এসেছে তাঁর অপার পাণ্ডিত্যের স্বাক্ষর নিজলিখিত, অনূদিত রচনা-প্রবন্ধ ও গ্রন্থগুলো। গুরুত্ব, তাত্ত্বিকতা, সুসংহত্বের বিচারে এসব রচনা কালজয়ী।
জন্ম ১৯৮৮ সালে, সিলেটে; বাংলাদেশের প্রখ্যাত এক মুহাদ্দিস ও হাদিস বিশারদ আল্লামা কুতুব উদ্দিন রাহ.-এর ঔরসে। ঢালকানগর মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদিস ও তাখাসসুস ফিল হাদিসের পাঠ নেন। বর্তমানে মাদানি নেসাবানুসারে প্রণীত প্রিয় প্রতিষ্ঠান ‘জামিআ ইউসুফ বানুরি’র উত্তরোত্তর অগ্রসরতার স্বপ্নে বিভোর। এই মাদরাসা আর লেখালেখিকে ঘিরেই জীবনের পথ চলছেন—এক সুদূর লক্ষ্যের অভিযাত্রী তিনি…
প্রকাশিত গ্রন্থ : ‘মহিলারা নামাজ পড়বে কোথায়’ ও ‘মাজহাবকে জানতে হলে’ মৌলিক। ‘শায়খ আলবানির ভুল বিচ্যুত’ ও ‘কাদিয়ানিবাদের প্রামাণিক বিশ্লেষণ’ অনূদিত।
এ ছাড়াও ড. শায়খ আলি মুহাম্মাদ সাল্লাবি রচিত ‘উমর ইবনে আবদুল আজিজ’ ও ‘হাসান রা.’-এর জীবনীগ্রন্থের অনুবাদ কালান্তর প্রকাশনী থেকে শীঘ্রই প্রকাশ হবে ইনশাআল্লাহ।
মাওলানা আহমাদ রফিক
লেখক, গবেষক

অনুবাদ